1. [email protected] : admi2019 :
  2. [email protected] : Bangla News1 : Bangla News1
মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১, ১১:০৭ পূর্বাহ্ন

কানের সাজে চাঁদবালি

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ১৫ নভেম্বর, ২০২১
  • ৪ বার পঠিত

ঐতিহ্যবাহী বাঙ্গালিয়ানা সাজের সাথে কিন্তু গয়নাগুলোও মানানসই হওয়া চাই। গলায় যেমন হাঁসুলি, মাদুলি, তেমনি কানের সাজেও আছে বাংলার ঐতিহ্যবাহী দারুণ কিছু দুল। আর সেইসব দুলের মধ্যে নানান রঙের পাথর বা কুন্দন খচিত জোড়া চাঁদের ‘চাঁদবালি’ অন্যতম। আগের দিনে শুধুমাত্র নবাব বাড়ির তনয়া, বধূদের কানে এই অপূর্ব দুলটি শোভা পেতো। নবাব বাড়িতে শুধু সোনা, রূপায় মোড়া চাঁদবালি পরা হলেও বর্তমান সময়ে বিভিন্ন ম্যাটেরিয়ালের চাঁদবালি অহরহই পাওয়া যায়। তাই যেকোনো উৎসবের জন্য পোশাকের সাথে মিল রেখে বাজেটের মধ্যেই আপনি কিনে নিতে পারেন চাঁদবালি। চাঁদবালির উপাখ্যান
চাঁদবালির উৎপত্তি মূলত ওপার বাংলা অর্থাৎ ভারত থেকে। ভারতের হায়দ্রাবাদে মুক্তার চাষ শুরু হয় নিজামউদ্দিনদের সময়কাল থেকে। দুলে ঝালর, তাও আবার মুক্তার! এই হলো হায়দ্রাবাদি স্টাইলের চাঁদবালির বৈশিষ্ট্য। চাঁদবালি যেই ম্যাটেরিয়াল দিয়েই তৈরি হোক না কেন, হায়দ্রাবাদি চাঁদবালি হলে এর নীচে অবশ্যই মুক্তার ঝালর থাকবে। ড্রপ, পাতা, ফিলিগ্রি, ড্যাঙ্গল, ঝুমুর, স্পাইক এরকম বাহারি ডিজাইনে তৈরি হতো চাঁদবালি। এখন সেই ঐতিহ্যবাহী চাঁদবালির ডিজাইনে কিছুটা বৈচিত্র্য লক্ষ্য করা যায়। এখন মুক্তার ঝালরের পরিবর্তে দেওয়া হয় বিভিন্ন রকম স্টোনের ঝালর।

কেনার আগে জানুন

  • চাঁদবালি কেনার আগে আপনার মুখের আকৃতি সম্পর্কে ধারণা থাকা ভালো। এতে করে দোকানে গিয়ে তাড়াহুড়ার মাঝে ট্রায়াল দিয়েও পরে বাসায় এসে যেন মনে না হয় তা আপনার চেহারার সাথে ঠিক মানাচ্ছে না।
  • গয়নার বাজারে ছোট থেকে শুরু করে ওভারসাইজ চাঁদবালি পাওয়া যায়। তাই আপনি যে সাইজ পরতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন, সেটিই বেছে নিন। কারণ স্টাইলিং এর প্রথম শর্ত কিন্তু আরামের প্রাধান্য।
  • চাঁদবালি এমনিতেই কিছুটা ছড়ানো হয়ে থাকে। তাই অন্য যেকোনো ঝুলা দুল যদি ছোট থেকে মাঝারি সাইজের পরতে ভালোবাসেন এবং আপনাকে মানায়, তাহলে চাঁদবালিও একটু ছোট সাইজেরটাই আপনাকে মানাবে

 

  • ছোটখাটো বা ঘরোয়া কোনো অনুষ্ঠানে অক্সিডাইজ ম্যাটেরিয়ালের চাঁদবালি পরতে পারেন। এই ম্যাটেরিয়ালের চাঁদবালিগুলো সাধারণত ছোট সাইজের হয়ে থাকে এবং খুব বেশি কারুকার্যও করা থাকে না। তাই ছিমছাম একটা স্মার্ট লুক পেতে অক্সিডাইজের চাঁদবালিই বেছে নিতে পারেন।
  • জমকালো অনুষ্ঠান, বিয়ে, গায়ে হলুদ বা রাতের ডিনার পার্টির ক্ষেত্রে সোনার, রূপার বা গোল্ড প্লেটেড ম্যাটেরিয়ালের বড় সাইজের চাঁদবালি পরলে অন্যরকম সুন্দর লাগবে।
  • যেহেতু চাঁদবালিতে অনেক কারুকাজ করা থাকে, তাই এই দুল মোটামুটি ভারিই হয়। কেনার আগে দেখে কিনুন যে কতটুকু ভার আপনি নিতে পারবেন। আর অনলাইনে কেনার সময় অবশ্যই ম্যাটেরিয়ালের বিষয়টি মাথায় রাখুন। সিলভার অ্যালয় বা রূপা, জার্মান সিলভার ম্যাটেরিয়ালের চাঁদবালি হলে বেশি বড় সাইজের নেবেন না।কারণ এই ম্যাটেরিয়ালের দুল অবশ্যই ভারী হবে। তবে ফাইবারের চাঁদবালি হলে বড় সাইজের কিনতে পারেন। কারণ এগুলো তুলনামূলক হালকা হয়। তাই কানে অস্বস্তিবোধ হবে না।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..